পদ্মা সেতুর দুই পাড়ে গাড়ির দীর্ঘ সারি

 

উদ্বোধনের ১৮ ঘণ্টা পর রবিবার সকাল ৬টা থেকে যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। খুলে দেওয়ার পর সেতুর দুই প্রান্তে গাড়ির দীর্ঘ সারি দেখা দিয়েছে। টোলপ্লাজায় এক একটি যানবাহনের টোল আদায় করতে যে সময় লাগছে, তার তুলনায় যানবাহনের চাপ অনেক বেশি হওয়ায় এই পরিস্থিতির তৈরি হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।এক একটি গাড়ির টোল আদায় করতে দু-তিন মিনিটের মতো লাগছে। মোট ৬টা বুথ থেকে টোল আদায় করা হলেও, যানবাহনের চাপ অত্যধিক হওয়ায় এই দীর্ঘ সারি তৈরি হয়েছে।

খুব ধীরে ধীরে এগোচ্ছে গাড়িগুলো। দীর্ঘ সারির কারণে টোল প্লাজায় পৌঁছাতে আধা ঘণ্টার মতো সময় লাগছে। তবে পদ্মা সেতু প্রথমবারের মতো পার হওয়া নিয়ে মানুষের উচ্ছ্বাস এত বেশি যে দীর্ঘ সারি নিয়ে খুব বেশি অভিযোগ নেই কারোর।আব্দুল্লাহ হাসান নামের একজন বাইক আরোহী নিজের ফেসবুকে এক পোস্টে লিখেছেন, ‌‘পদ্মা সেতুর টোল প্লাজা থেকে প্রায় ৩ কি.মি জ্যাম। মূলত অতিরিক্ত গাড়ির চাপ। বাম লেন ধরে আর বাইক থাকাতে সময় লাগেনি। আলহামদুলিল্লাহ্। জানা যায়, রাত থেকেই নদীর দুই পাড়ে বিপুলসংখ্যক যান এসে দাঁড়ায় পদ্মা সেতু পারি দেওয়ার জন্য।ভোর থেকে যাত্রা শুরু হলে সবাই প্রথমবারের মতো সেতুতে উঠার জন্য গাড়ির টোল দিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। আজ প্রথম টোল দিয়েছেন এক মোটরসাইকেল আরোহী। প্রথম দিনে দীর্ঘলাইনে থাকলেও তাদের আনন্দের শেষ নেই, যাত্রীরাও উচ্ছ্বসিত। দুই প্রান্তে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থাও।যান চলাচলের জন্য সেতুটি খুলে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দুই প্রান্তের ১৪টি টোল গেট চালু হয়ে যায়। সবকয়টি গেটে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। নির্ধারিত টোল দিয়ে থ্রি হুইলার ছাড়া যে কোনো গাড়ি পার হতে পারছে পদ্মা সেতু দিয়ে।  গতকাল শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা বহুমুখি সেতুটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন। পরে গভীর রাত থেকে পদ্মা সেতুর টোল প্লাজায় ভিড় করতে থাকে হাজারো যানবাহন ও দর্শনার্থী। এতে করে প্রায় ৭ কিলোমিটারজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.