অপহৃত তরুণীর প্রাণ বাঁচাল ফুড ডেলিভারি অ্যাপ!

অনলাইনে অথবা বিভিন্ন ফুড ডেলিভারি অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার করতে আমরা অভ্যস্ত। কিন্তু সেই ফুড ডেলিভারি অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার করে যদি কারও প্রাণ বেঁচে যায় তাহলে কেমন হয়? শুনতে অবাক লাগলেও বাস্তবে এমনটাই হয়েছে। সম্প্রতি অপহৃত এক তরুণীকে ফুড ডেলিভারি অ্যাপে পাওয়া বিশেষবার্তার মাধ্যমেই উদ্ধার করা হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে এই ঘটনাটি ঘটেছে। গ্রাবহাব নামের ফুড ডেলিভারি অ্যাপের খাবার অর্ডার করে রেস্তোরাঁর কর্মীদের পুলিশে খবর দেওয়ার কাতর আবেদন জানিয়েছিলেন ওই তরুণী। ওই ফুড ডেলিভারি অ্যাপের মাধ্যমে নিউ ইয়র্কের একটি রেস্তোরাঁ থেরে স্যান্ডউইচ এবং বার্গার অর্ডার করেছিলেন তিনি। অতিরিক্ত নোটে সেখানে লেখা ছিল- “আমাকে অপহরণ করা হয়েছে। এখনই পুলিশে খবর দিন।” রেস্তোরাঁর ফেসবুক পেজ থেকে ওই তরুণী পাঠানো বিশেষ বার্তা শেয়ার করা হয়েছিল। তরুণীড় বার্তা পেয়েই পুলিশে খবর দেন রেস্তোরাঁর কর্মীরা। পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।বিষয়টি সামনে আসার পর অনেকেই সিনেমার চিত্রনাট্যের সঙ্গে এই ঘটনার মিল খুঁজে পেয়েছেন। সকালের ঘুম থেকে ওঠেই আমেরিকার জনপ্রিয় ওই ফুড ডেলিভারি অ্যাপের মাধ্যমে তিনি প্রাতঃরাশ অর্ডার করেন। সেখানে তরুণী লেখেন-“আমাকে অপহরণ করা হয়েছে। এখনও পুলিশকে বিষয়টি জানান, তবে মাথায় রাখবেন দুষ্কৃতীদের যেন কোনওভাবেই সন্দেহ না হয়।” স্যান্ডউইচ বার্গারের অর্ডারের সঙ্গে সঙ্গে ওই বিশেষ বার্তা পেয়ে রেস্তোরাঁ কর্মীরা প্রথমে বিশ্বাস করেননি। তারা ভেবেছিলেন, কেউ নিশ্চয়ই তাদের সঙ্গে মজা করছেন। কিন্তু তাদের মনে সন্দেহ দানা বাঁধে, যে আসলেই কী এমন মজা কেউ করবেন? এড়পোড় রেস্তারাাঁর কর্মীরা তাদের মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। কোনও ঝুঁকি না নিয়েই মালিক এলিস বারমোজা সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে বিষয়টি জানানোর নির্দেশ দেন। ঘটনা জানার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং ওই তরুণীকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের পর ওই তরুণী নিজে ফোন করে রেস্তোরাঁ মালিককে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তরুণীকে অপহরণের ঘটনায় এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে অপহরণ, যৌন হেনস্থার মতো একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সূত্র- গ্লোবাল নিউজ, ইন্ডিয়া টাইমস।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.